শনিবার   ০৬ জুন ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ২৩ ১৪২৭   ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

৪২

কী আলোচনা হল ফখরুল-খালেদার মধ্যে!

প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২০  

দুর্নীতি মামলায় দুই বছরের বেশি সময় কারাভোগের পর করোনা পরিস্থিতিতে কিছু দিন আগে জামিনে মুক্তি পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। চিকিৎসকদের পরামর্শে প্রথম দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। এখনও অনেকটা সেভাবেই আছেন। এই সময়ের মধ্যে দলের দায়িত্বশীল কারো সঙ্গে কোনো বৈঠক করেননি। 

সোমবার (১১ মে) রাত ৯টায় তিনি রাজধানীর গুলশানে খালেদা জিয়ার বাসভবন ফিরোজায় এক গোপন বৈঠকে মিলিত হন বেগম জিয়া ও মির্জা ফখরুল। বেরিয়ে যান রাত সাড়ে ১০টার দিকে। দীর্ঘদিন পর কী নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হল, সে সম্পর্কে মুখ খুলতে রাজি নন ফখরুল। তবে সূত্র বলছে, মুক্তির পর এই প্রথম দলীয় কর্মকাণ্ড নিয়ে জানতে চাইলেন বেগম খালেদা জিয়া।

মির্জা ফখরুল দেশের সার্বিক পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত করেন খালেদা জিয়াকে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের এই সুযোগে দল কী কী কার্যক্রম চালাচ্ছে তা বিস্তারিত বর্ণনা করেন। এছাড়া ফখরুলকে গণমাধ্যমের সঙ্গে কি কি বিষয়ে কথা বলতে হবে সে ব্যাপারে ব্রিফ করছেন। এছাড়া কঠোর আন্দোলনে যেয়ে দেশে নতুন করে নাশকতা করারও পরিকল্পনা রয়েছে। আস্তে আস্তে বেগম খালেদা জিয়া বিএনপির নেতৃত্ব বুঝে নিয়েছেন। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তার নির্দেশেই কাজ করছেন বলে জানা গেছে। তবে বিগত দুবছর আগে দলকে যে অবস্থায় রেখে গিয়েছিলেন, দল সেই অবস্থার চেয়ে আরো দুর্বল হওয়ায় কিছুটা অসন্তোষ প্রকাশ করেন বিএনপি নেত্রী। তবে মির্জা ফখরুলকে আরেকবার সুযোগ দিতে চান বলেও জানা গেছে।

জানা গেছে যে, বেগম খালেদা জিয়াই মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে সরকারবিরোধী সমালোচনার কাজে ব্যবহার করছেন বেগম খালেদা জিয়া।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করছেন তার পুত্র লন্ডনে পলাতক তারেক জিয়া। তারেক যেভাবে নির্দেশনা দিচ্ছে সেভাবেই তিনি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে জানাচ্ছেন। এখন তারেক জিয়া সরাসরি বিএনপির নেতৃবৃন্দর সঙ্গে কথা বলছেন না বলেই জানা গেছে। তবে বিএনপির তৃণমূলের সঙ্গে তারেকের যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর