শনিবার   ০৬ জুন ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ২৩ ১৪২৭   ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

৩৬

দ্বিতীয় মেয়াদে মেয়রের দায়িত্ব নিলেন আতিক

প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২০  

দ্বিতীয় মেয়াদে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়রের দায়িত্ব নিয়েছেন আতিকুল ইসলাম।

বুধবার দুপুরে দায়িত্ব নেওয়ার পর ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে উত্তর সিটি করপোরেশনের নানা উন্নয়ন পরিকল্পনা তুলে ধরেন তিনি।

পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নে আতিক বলেন, করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে নিম্ন আয়ের মানুষের আয় কমে গেছে। এ কারণে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে ৩ লাখ পরিবারকে মানবিক সহায়তা দিচ্ছে ডিএনসিসি। এই ত্রাণ প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে কিউআর কোড পদ্ধতি চালু করেছেন তিনি।

“মানুষ ত্রাণ পাচ্ছে কি না তা নিশ্চিত করতে আমি কিউআর কোড পদ্ধতি ব্যবহার করছি। যাকে ত্রাণ দেওয়া হচ্ছে তার মোবাইলে আমাদের দেওয়া কিউআর কোড স্ক্যান করবেন। এর মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়া যাবে, তিনি ত্রাণ পেয়েছেন। এতে অনিয়ম থাকবে না।“

ডিএনসিসির কাউন্সিলর ও কর্মকর্তারা এই কাজ তদারক করছেন বলে জানান মেয়র। হটলাইনে ফোন করে যে কেউ ডিএনসিসির কাছে ত্রাণ সহায়তা চাইতে পারে।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সঙ্গে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ার ঝুঁকির বিষয়েও সচেতন আছেন বলে জানান আতিক।

তিনি বলেন, বছরব্যাপী মশক নিধনের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এই পরিকল্পনায় ডেঙ্গু রোগবাহী এইডিস মশা নিয়ন্ত্রণে গত ৭ অক্টোবর থেকে মশার প্রজননস্থল অর্থাৎ হটস্পট চিহ্নিত করার জন্য দুজন কীটতত্ত্ববিদ এবং ১০ জন শিক্ষানবিস কীটতত্ত্ববিদ নিয়োজিত করা হয়েছে। তারা ইতোমধ্যে গবেষণা করে কোন এলাকায় মশার ঘনত্ব কত, তা নির্ধারণ করেছেন এবং সে অনুযায়ী মশকনিধন কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

মশা নিধনে সিটি করপোরেশনের পাশাপাশি নাগরিকদেরও সচেতন হতে আহ্বান জানান মেয়র।

“আপনারা সচেতন হোন, আপনাদের বাড়ির আশপাশ পরিষ্কার রাখুন। কোথাও যেন পানি জমে থাকতে না পারে।”

কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে পরীক্ষা সহজ করতে ব্র্যাকের সহায়তায় ডিএনসিসির আটটি স্থানে নমুনা সংগ্রহ বুথ চালুর কথা জানান আতিক।

 “আগামী সপ্তাহের মধ্যে এসব বুথ স্থাপন করা হবে।এছাড়া কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষায় একটি পিসিআর ল্যাব স্থাপনেরও পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।”

এই বিভাগের আরো খবর