বুধবার   ০৩ জুন ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ২০ ১৪২৭   ১১ শাওয়াল ১৪৪১

৫৬৫

বিএনপির শোষণে জোট ছাড়ছে শরিক ২০ দল

মাহবুব খন্দকারঃ

প্রকাশিত: ১৯ অক্টোবর ২০১৯  

বিএনপির দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সঙ্গী ২০ দলীয় জোটে টানাপোড়েন বেড়েই চলেছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বিএনপির রাজনীতিক জোট করার মধ্য দিয়ে ২০ দলের সঙ্গে দলটির বাঁধন আলগা হওয়া শুরু হয়। যা প্রকাশ্যে আসে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগমুহূর্তে জোটের আসন বণ্টন নিয়ে। তখন বিএনপি এই সমস্যা সামাল দিলেও নির্বাচনের পর দূরত্ব আরও বাড়তে থাকে। দীর্ঘদিনের জোটসঙ্গী বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) বেরিয়ে আসার মধ্য দিয়ে আবারও প্রকাশ্যে রূপ নেয় জোটটির অভ্যন্তরীণ সংকট। এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর টানাপোড়েনকে কেন্দ্র করে জোট ছাড়ের বিজেপির ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন তিন কারণে ২০ দলে টানাপোড়েন। ২০ দলকে সাইড লাইনে রেখে বিএনপির ‘একলা চলো নীতি’, ঐক্যফ্রন্টকে প্রাধান্য দেয়া এবং সর্বশেষ অলি আহমেদের নেতৃত্বে ‘জাতীয় মুক্তি মঞ্চ’ গঠনকে কেন্দ্র করে এ টানাপোড়েন চরম পর্যায়ে গিয়ে পৌছে। বিএনপির দীর্ঘদিনের রাজপথের সঙ্গী ২০ দলে ঐক্যের পরিবর্তে এখন অনৈক্য প্রদর্শন হচ্ছে। যা দিন দিন প্রকাশ্য রূপ নিচ্ছে। জোটের বৈঠকে অংশ নিচ্ছেন না শরিক দলের শীর্ষ নেতারা। এমনকি জোট ঘোষিত কর্মসূচিতেও তাদের দেখা যাচ্ছে না। সর্বশেষ গত ১৫ অক্টোবর, মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে জোটের এক অনুষ্ঠানে কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ, মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিমসহ শীর্ষ নেতারা ছিলেন অনুপস্থিত। এমন পরিস্থিতি চলতে থাকলে জোট আরেক দফা ভাঙনের কবলে পড়তে পারে বলেও আশঙ্কা অনেকের।

এদিকে শরিক ২০ দলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, জোটের ভাঙনের জন্য বিএনপিই দায়ী মনে করছেন তারা। বিএনপি ২০ দলকে গুরুত্ব না দিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে গুরুত্ব দিচ্ছে। এ কারণে গত নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে বলে মত তাদের। প্রয়োজন শেষে বিএনপি এখন তাদের উপযুক্ত মূল্য দিচ্ছেনা বলে অভিযোগ তুলেন অনেকেই। শরিক দলগুলোর সাথে আলোচনা না করেই নেয়া হচ্ছে সিদ্ধান্ত। তাছাড়া বিএনপির শীর্ষ নেতাদের বেফাঁস মন্তব্য আর খামখেয়ালিপনার দায় নিতে চাচ্ছে না শরিক দলগুলো। বিএনপির সাথে জামায়াত এর আঁতাতও ভালো চোখে দেখছে না অনেক দল।

এমতাবস্থায় বিএনপির ভবিষৎ বিষয়ে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করেন, ২০ দলের ভাঙ্গলের ফলেই বিলুপ্তির পথে হাঁটবে বাংলাদেশের বহুল আলোচিত-সমালোচিত এই রাজনৈতিক দলটি। আর বিএনপির এই ভাঙ্গনের কফিনে প্রথম পেরেকটি হলো, ঐক্যফ্রন্টের মতো অযোগ্য অর্বাচীন একটি দলকে প্রাধান্য দেয়া।

এই বিভাগের আরো খবর